নিতম্বের পশম কাটার বিধান

জিজ্ঞাসা: পায়খানার রাস্তার পশম কাটা কতটা জরুরী? স্পষ্ট দলীল প্রমাণের আলোকে জানিয়ে বাধিত করবেন। জবাব: পিছনের রাস্তার লোম কাটা ও নাভির নিচের লোম কাটার ন্যায় জরুরী। কেননা, যদি তা না কাটা হয়, তাহলে কোন কোন ক্ষেত্রে পিছনের রাস্তার লোমের সাথে নাপাকি লেগে থাকতে পারে। সূত্র: শামী: ৩/৪৮৭, হাশিয়াতুত তাহতাবী: ৫২৭পৃ., ফাতহুল বারী:১০/৩৮৭, আওজাযুল মাসালিক, ১৬/২৬৩, ফাতাওয়ায়ে মাহমুদিয়া: ২৭/৪৭২ في الشامية......

বিস্তারিত»

কুরআন শরীফ, সুরা/আয়াত সম্বলিত কিতাবাদি নিয়ে বাথরুমে প্রবেশ করা

জিজ্ঞাসা: ছোট কুরআন শরীফ কিংবা কুরআনের সুরা সম্বলিত মঞ্জিল, আয়াত, সূরা মুনাজাতে মাকবুল বা এ জাতীয় দু‘আর বই পকেটে নিয়ে বাথরুমে যাওয়ার শরঈ বিধান কি? অনেক সময় এগুলো বাইরে রেখে বাথরুমে যাওয়ার সুযোগ থাকে না। অথবা সুযোগ থাকে, কিন্তু সহজতার জন্য এগুলো পকেটে নিয়ে বাথরুমে যাওয়া হয়। কুরআন ও সুন্নাহর আলোকে উক্ত বিষয়ের সমাধান জানিয়ে বাধিত করবেন। জবাব: ছোট কুরআন......

বিস্তারিত»

মেসওয়াক করার সুন্নত তরীকা

জিজ্ঞাসা: মেসওয়াক করার সুন্নত তরীকা কী জবাব: মেসওয়াক করার সুন্নত তরীকা হলো, প্রথমে উপরের দাঁতের ডান দিক থেকে, তারপর বাম দিক থেকে, তারপর নিচের দাঁতের ডান দিক থেকে, তারপর বাম দিক থেকে আড়াআড়িভাবে মেসওয়াক করা। অতঃপর জিহবার ভিতরের অংশে লম্বা লম্বিভাবে মেসওয়াক করা। দাঁতের গোড়া থেকে নিয়ে মাথার দিকে এবং দাঁতের মাথার ভাঁজ ও কোনাগুলেতে মেসওয়াক করাও সুন্নত, নতুন পানি......

বিস্তারিত»

নাভির নিচের পশম কাটার পরিমাণ

জিজ্ঞাসা: নাভির নিচের ডান ও বাম দিকে কতটুকু পশম কাটতে হবে? দু পায়ের ভাজের কাটতে হবে কি? জবাব: হ্যাঁ, উভয় রানের ভাঁজের মধ্যে অবস্থিত পশমসমূহও পরিস্কার করতে হবে। সূত্র: বুখারী: ২/৮৭৫, ফাতাওয়া: আলমগীরী: ৫/৩৫৮, রদ্দুল মুহতার: ৩/৪৮৭, হাশিয়াতুত ত্বহতাভী: ৫২৭, মিরক্বাতুল মাফাতীহ: ৮/২৭২, ফাতহুল মুলহীম:১/৪১৯, ফাতাওয়া মাহমুদিয়া: ২৭/৪৭২ في فتح الباري ১০/৩৭৮ : العانة الشعر النابت على الركب بفتح الراء......

বিস্তারিত»

দাঁড়িয়ে বা হেঁটে মেসওয়াক করা

জিজ্ঞাসা: দাঁড়িয়ে বা হেঁটে মেসওয়াক করায় কোন সমস্যা আছে কি? জবাব: ফুকাহায়ে কেরাম শুধু শুয়ে মেসওয়াক করাকে মাকরুহ বলেছেন, কিন্তু দাঁড়িয়ে বা হেঁটে মেসওয়াক করার ব্যাপারে কোন বক্তব্য পেশ করেন নি এবং হাদীসের কিতাবসমূহেও এ ব্যাপারে স্পষ্ট বা অস্পষ্ট কোন ধরণেরই নিষেধাজ্ঞা পাওয়া যায়নি, ফিক্বহের কিতাবেও না, বরং ফুক্বাহায়ে কেরামের অনেক বক্তব্য থেকে বৈধতার বিষয়টিই বুঝে আসে। সূত্র: মুসলিম, মুসনাদে......

বিস্তারিত»

রেক্সিন দ্বারা তৈরী মোজার উপর মাসাহ কর

জিজ্ঞাসা: বর্তমান বাজারে রেক্সিন দ্বারা তৈরী মোজা পাওয়া যায়, যা দেখতে ও কাজে অবিকল চামড়ার মোজার ন্যায়। অনেক সময় চামড়ার মোজার কথা বলে ব্যবসায়ীরা রেক্সিনের মোজা বিক্রি করে দেয়। এ ধরণের মোজার উপর মাসাহ জায়েয কি না? এ ধরণের মোজার রেক্সিনের ভেতরাংশে মোটা কাপড় লাগানো থাকে। এ ক্ষেত্রে রেক্সিন যদি তিন আঙ্গুলের চেয়েও বেশি ফেটে যায়। কিন্তু কাপড় না ফাড়ার......

বিস্তারিত»

শিশুরা শিক্ষার উদ্দেশ্যে উযু বিহীন অবস্থায় কুরআন স্পর্শ করতে পারবে কি না?

জিজ্ঞাসা: আমরা জানি উজু ছাড়া কুরআন শরীফ ধরা যায় না। তবে জানার বিষয় হলো, নাবালেগ শিশুরা কুরআন শিখার জন্য উজু ছাড়া তা ধরতে পারবে কি না? জবাব: নাবালেগ বাচ্চারা উজু ছাড়াও কুরআন শরীফ স্পর্শ করতে পারবে এবং বড়রা কুরআনের তালীম দেয়ার উদ্দেশ্যে তাদের হাতে কুরআন শরীফ দিতে পারবে, এতে তারা গুনাহগার হবে না। সূত্র: আল হিদায়া: ১/৬৫, ফাতহুল ক্বাদীর: ১/১৭৩,......

বিস্তারিত»

দুধের বাচ্চার বমির হুকুম

জিজ্ঞাসা: ছোট বাচ্চারা যে দুধ খাওয়ার পর বমি করে তা পাক না কি নাপাক? বাচ্চার মায়ের কাপড়ে লেগে গেলে তা নিয়ে নামায সহীহ হবে কি না? জবাব: ছোট বাচ্চা দুধ পান করার পর যদি মুখ ভরে বমি করে এবং তা কাপড়ে লেগে যায়, তাহলে ঐ কাপড় নাপাক হয়ে যায়। সুতরাং তা পবিত্র করে কিংবা পরিবর্তন করে নামায আদায় করতে হবে।......

বিস্তারিত»

নাপাক তোষক পাক করার পদ্ধতি

জিজ্ঞাসা: অনেক সময় দেখা যায়, তোষকে বীর্য ইত্যাদি নাপাক লেগে যায়, এবং পরে আবার শুকিয়ে যায়। আবার অনেক সময় আলামত থাকে না। এখন জানার বিষয় হলো, তোষকে নাপাক লাগলে তা পাক করার পদ্ধতি কী? জবাব: তোষক বা এ জাতীয় বস্তু যেগুলো নিংড়ানো যায় না সেগুলো পাক করার পদ্ধতি হলো- (১) বালতি, বল, বা টেবে ধৌত করার ক্ষেত্রে এগুলো তিনবার ঘষে......

বিস্তারিত»

ঢিলা/টিস্যুর একাংশ ছোট এস্তেঞ্জায় ও অপরাংশ বড় এস্তেঞ্জায় ব্যবহার করা

জিজ্ঞাসা: একটি ঢিলা বা টিস্যু পেপারের কিছু অংশ ছোট ইস্তিঞ্জায় ব্যবহার করার পর তার অবশিষ্ট শুকনো অংশ বড় ইস্তিঞ্জায় ব্যবহার করা জায়েয হবে কি না? জবাব: উল্লেখিত সুরতে ঢিলা বা টিস্যু পেপারের একাংশ ছোট ইস্তিঞ্জায় ব্যবহার করার পর অবশিষ্টাংশে নাপাকী না লেগে থাকলে তা পুনরায় বড় ইস্তিঞ্জায় ব্যবহার করা জায়েয আছে। অন্যথায় তা ব্যবহার করা মাকরুহ। সূত্র: সূরা তাওবা: ১০৮,......

বিস্তারিত»

একদিন রক্ত বের হলে হায়েয গণ্য হবে কি?

জিজ্ঞাসা: একজন মহিলার দীর্ঘ দিন যাবত শুরু থেকেই পাঁচ দিন হায়েয হতো, এমনকি তার তিনটি সন্তানও হয়েছে। এখন দীর্ঘ দুই বছর ধরে একদিন করে হায়েয হয়। এখন সে কি করবে? সে কি পূর্বের আদত অনুযায়ী নামায ছাড়বে না কি পবিত্র হওয়ার পর নামায আদায় করবে? জবাব: প্রশ্নে বর্ণিত মহিলার হায়েযের পাঁচ দিনের স্বাভাবিক নিয়ম পরিবর্তন হয়ে একদিনে পরিণত হয়েছে। আর......

বিস্তারিত»

ফরয গোসলের ছিটা পানির বিধান

জিজ্ঞাসা: জুনুবী ব্যক্তি গোসল করার সময় শরীর থেকে ছিটকে পড়া পানির হুকুম কী? জবাব: জুনুবী ব্যক্তি গোসল করার সময় তার শরীর থেকে ছিটকে পড়া পানি শরীয়তের দৃষ্টিতে ‘ব্যবহৃত পানি’। আর ব্যবহৃত পানির হুকুম হলো, তা নিজে পবিত্র; অবশ্য অন্যকে পবিত্র করতে পারে না, এটাই ইমাম মুহাম্মাদ রহ. এর অভিমত। আর এ মতের উপরই ফাতওয়া প্রদান করা হয়েছে। সুতরাং জুনুবী ব্যক্তির......

বিস্তারিত»

ফরয গোসল করতে অক্ষম হলে

জিজ্ঞাসা: কোন ব্যক্তির উপর গোসল ফরজ হয়েছে, এমতাবস্থায় সে গোসল করতে সক্ষম নয়। কারণ, এতে তার রোগ বেড়ে যাবে বা তার রোগ বেড়ে যাওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে, তবে সে উজু করতে সক্ষম, এতে তার ক্ষতির কোন সম্ভাবনা নেই, এ ক্ষেত্রে তার করণীয় কী? সে কি গোসলের জন্য শুধু তায়াম্মুম করবে? না কি উজু করে শুধু গোসলের জন্য তায়াম্মুম করবে। এক্ষেত্রে......

বিস্তারিত»

গরম পানি দিয়ে গোসল করার সামর্থ থাকা অবস্থায় তায়াম্মুম করা

জিজ্ঞাসা: আমি একটি জটিল রোগে আক্রান্ত। যার দরুন স্ত্রী সহবাসের পর গোসল করলে প্রচন্ড মাথা ব্যথা হয় এবং শ্বাস-প্রশ্বাসে এত কষ্ট হয় যে, নাকে ঔষধ ধরে রেখে শ্বাস নিতে হয়। এমতাবস্থায় আমার জন্য তায়াম্মুম করার অবকাশ আছে কি? জবাব: গরম পানি দিয়ে গোসল করলে যদি আপনার উল্লেখিত কষ্ট না হয়, তাহলে তায়াম্মুম করা জায়েয হবে না; বরং গরম পানি দিয়ে......

বিস্তারিত»

অসুস্থ ব্যক্তির জন্য গোসলের পরিবর্তে তায়াম্মুম করা

জিজ্ঞাসা: আমি একজন অসুস্থ ব্যক্তি। এখন শীতকাল আমার সব সময় ঠান্ডা কাশি থাকে। এখন জিজ্ঞাসা হলো, যদি আমার সপ্নদোষ হয়, আর আমি যদি গোসল করি, তাহলে আরো বেশি ঠান্ডা লাগার আশংকা থাকে। এমন কি ইয়াকিনী ভাবেই আমার ঠান্ডা বেড়ে যায়। এখন আমার করণীয় কী? আমি কি গোসল করবো? না কি অন্য কোন পন্থা আছে? জবাব: প্রশ্নে বর্ণিত অবস্থায় আপনার জন্য......

বিস্তারিত»

উজু বিহীন ব্যক্তি পানি ব্যবহারে অক্ষম হলে করণীয়

জিজ্ঞাসা: আমার বাড়ী রংপুর, বর্তমানে রংপুরে অনেক ঠান্ডা, তাই আমার মায়ের উজু করতে সমস্যা হয়। যদি পানি দ্বারা উজু করে তাহলে তার পা ফুলে যায় এবং পায়ে অনেক ব্যথা হয়, (গরম ও ঠান্ডা উভয় পানি ব্যবহারে উক্ত সমস্যাটি দেখা দেয়) উক্ত অবস্থায় তার কী করণীয়? জবাব: ঠান্ডা বা গরম উভয় প্রকার পানি দ্বারা উযু করলে যদি আপনার মায়ের পা ফুলে......

বিস্তারিত»

জুনুবী ব্যক্তি যদি গোসল করতে অক্ষম হয়, কিন্তু উজু করতে সক্ষম হয়, তাহলে করণীয়

জিজ্ঞাসা: গোসল ফরজ হয়েছে এমন ব্যক্তি অসুস্থতার কারণে গোসল করতে অক্ষম, কিন্তু উযু করতে সক্ষম এবং তার কাছে যথেষ্ট পরিমাণ পানিও আছে। এ অবস্থায় সে তায়াম্মুম করবে নাকি তার উযুও করতে হবে। জবাব: উক্ত ব্যক্তি উভয়ের পরিবর্তে শুধু তায়াম্মুম করবে। উযু করতে সক্ষম হলেও এক্ষেত্রে তায়াম্মুমের সাথে আর উযু করার প্রয়োজন নেই। অবশ্য, পরবর্তীততে উযু ভঙ্গের কোন কারণ পাওয়া গেলে......

বিস্তারিত»

গোসলের ফরযগুলো অন্যান্য গোসলে প্রযোজ্য হবে কি?

জিজ্ঞাসা: আমরা জানি গোসলের ফরয তিনটি। (১) কুলি করা, (২) নাকে পানি দেয়া, (৩) সমস্ত শরীর ধৌত করা। জানার বিষয় হলো, এই ফরযগুলো কি ফরয গোসলের জন্য নাকি সাধারণ গোসলের জন্যও প্রযোজ্য? জবাব: উল্লেখিত ফরযগুলো কেবল জানাবতের (ফরয) গোসলের ক্ষেত্রে ফরয হিসাবে পালনীয়। অন্যান্য সাধারণ গোসলের ক্ষেত্রে ফরয হিসাবে পালনীয় নয়, তবে সুন্নাত হিসাবে পালনীয়। তাই সাধারণ গোসলের ক্ষেত্রেও এগুলো......

বিস্তারিত»

ফরয গোসলে নাকে পানি না দিয়ে ঐ গোসল দিয়ে নামায আদায় করা

জিজ্ঞাসা: কারো যদি জানাবাতের গোসলের প্রয়োজন হয় এবং সে প্রথমে পেশাব করে, অতপর নাপাক পরিষ্কার করে, অতপর উভয় হাত ধৌত করে, তারপর কুলি করে, তারপর সমস্ত শরীরে তিন বার পানি ঢালে কিন্তু নাকে পানি না দেয়, তারপর সে ঐ গোসল দিয়ে কয়েক ওয়াক্ত নামায পড়ে। জিজ্ঞাসা হল, উক্ত গোসল দ্বারা তার নামায আদায় শুদ্ধ হয়েছে কি না ? জবাব: প্রশ্নে......

বিস্তারিত»

অনবরত ফোঁটা ফোঁটা পেশাব বের হয়, এমন ব্যক্তির নামায পড়া

জিজ্ঞাসা: এক ব্যক্তির সর্বদা ফোঁটায় ফোটায় প্রস্রাব বের হয়। সে নামায আদায়ের জন্য কীভাবে উজু করবে? প্রত্যেক নামাযের সময় কি পরিধেয় কাপড় পরিবর্তন বা ধৌত করতে হবে? জবাব: প্রশ্নে উল্লেখিত ব্যক্তির যদি কোন নামাযের পূর্ণ ওয়াক্তে এমনভাবে অনবরত প্রস্রাবের ফোঁটা ঝরতে থাকে যে, ঐ নামাযের ফরজ রাকাতসমূহ আদায় করার মত সময়ও পাওয়া যায় না, যাতে প্রস্রাবের ফোঁটা বন্ধ থাকে। তাহলে......

বিস্তারিত»

ক্ষতস্থান থেকে রক্ত, পুঁজ, পানি বের হতে থাকলে করণীয়

জিজ্ঞাসা: এক ব্যক্তির দেহের এমন স্থানে ফোড়া হয়েছে যে, যদি সে নামায আদায় করে তাহলে চাপ লেগে ঐ ফোঁড়া থেকে রক্ত, পুঁজ, পানি বের হয়ে উজু ভেঙ্গে যাবে। এখন সে যদি আবার উজু করে নামায আদায় করে তাহলে আবারও একই অবস্থা হবে। এভাবে বারবার এই অবস্থা হবে। জিজ্ঞাসা হল ঐ ব্যক্তি কিভাবে নামায আদায় করবে? জবাব: প্রশ্নে উল্লেখিত ব্যক্তির বর্ণিত......

বিস্তারিত»

বাংলা উচ্চারণ ও অনুবাদ সম্বলিত কুরআন উজু ব্যতীত স্পর্শ করা

জিজ্ঞাসা: বাংলা উচ্চারণ ও অনুবাদ সম্বলিত কুরআনকে উজু ব্যতীত স্পর্শ করা জায়েয কি না। জবাব: কুরআনের আয়াত ব্যতীত বাংলা অনুবাদ ও উচ্চারণ উজু ব্যতিত স্পর্শ করা জায়েয আছে। তবে খুব সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে, যাতে আয়াতের মধ্যে হাতের স্পর্শ না লাগে। তবে, বর্ণিত কুরআন শরীফও উজু করে স্পর্শ করা উত্তম। সূত্র: আদ্দুররুল মুখতার: ১/১৭৭, শামী: ১/১৭৭, আল মুগনী: ১/১৮৯, হালাবী......

বিস্তারিত»

উজুতে দুনিয়াবী কথা বলার হুকুম

জিজ্ঞাসা: উজু করা অবস্থায় দুনিয়াবী কোন কথা বললে উজুর কোন ক্ষতি হবে কি? জবাব: উজু অবস্থায় যদি বিনা প্রয়োজনে দুনিয়াবী কথা বলে তাহলে উযু হয়ে যাবে, তবে মাকরুহ হবে। কারণ, উযুর সুন্নত হল তাতে দু‘আ পড়া এবং দুনিয়াবী কোন কথা না বলা। হ্যাঁ, বিশেষ প্রয়োজনে কথা বললে উজুর কোন ক্ষতি হবে না। সূত্র: আল মুহীতুল বুরহানী: ১/৪৫, তাতারখানিয়াহ: ১/২২৭, খুলাসাতুল......

বিস্তারিত»

চোখের ময়লা-কেতুর বের হলে উজু ভাঙবে কি না?

জিজ্ঞাসা: চোখ উঠার ফলে যে কেতুর ময়লা বের হয় তা দ্বারা উজু ভেঙ্গে যাবে কি? জবাব: চোখ উঠার ফলে যদি চোখে ব্যথা অনুভব হয়, তাহলে বের হওয়া ময়লা নাপাক বলে বিবেচিত হবে এবং তা বের হওয়ার দ্বারা উজু ভেঙ্গে যাবে। আর যদি ব্যথা অনুভব না হয়, তাহলে উজু ভাঙ্গবে না। সূত্র:আল ফিক্বহুল হানাফী ফি ছাওবিহিল জাদীদ:১/৮৭ হাশিয়াতুত তাহতাবী: ৮৭, আদ্দুররুল......

বিস্তারিত»

এটাস্ট বাথরুমে উজুর দু‘আ পড়ার বিধান

জিজ্ঞাসা: এটাস্ট বাথরুমে উজু করার সময় ও উজুর পর দু‘আ পড়া যাবে কি? জবাব: এটাস্ট বাথরুম যদি এমন হয় যে বাথরুম ও উজু গোসল খানার মাঝে পর্দা বা দেয়াল থাকে তাহলে উজু করার সময় দু‘আ পড়া যাবে, শর্ত হল, গোসলখানা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। যদি টয়লেট ও গোসলখানার মাঝে পাটিশন না থাকে কিংবা গোসল খানা অপরিচ্ছন্ন থাকে তাহলে সেখানে উজুর......

বিস্তারিত»

টেপের মাধ্যমে উজু করার বিধান

জিজ্ঞাসা: ইসলামী শরীয়তের দৃষ্টিতে অপচয় করা অবৈধ, কিন্তু টেপে  স্বাভাবিকভাবে উজু করলেও দেখা যায় যে, অন্তত একমগ পানি অপচয় হয়। এমতাবস্থায় টেপে উজু করা যাবে কি? জবাব: হাদীস শরীফে এসেছে, মহামানব হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ১মুদ তথা ৭৯৬.৬৮ গ্রাম পানি দ্বারা উজু করতেন। (দ্র. ইবনে মাজাহ পৃ. ২৪) আর বাস্তবেও একমুদ পানি দ্বারা উজু করলে যথেষ্ট হয়ে যায়। অবশ্য,......

বিস্তারিত»

পেশাব পায়খানার রাস্তা দিয়ে কী কী বের হলে উজু ভঙ্গ হয়?

জিজ্ঞাসা: পেশাব পায়খানার রাস্তা দিয়ে কী কী বের হলে উযু নষ্ট হয়? জবাব: পেশাব-পায়খানার রাস্তা দিয়ে যে কোন জিনিস সামান্য পরিমাণ বের হলেও তাতে উজু নষ্ট হয়ে যায়। উদাহরণত পেশাব-পায়খানা, কীট, পাথর, ইস্তেহাজার রক্ত, উত্তেজনা বিহীন বীর্য, যে কোন ধরণের ধাতু যেমন মজী ও অদী ইত্যাদি। সূত্র: আল ইখতিয়ার : ১/১২, আল বাহরুর রায়েক ১/৩১, আদ্দুররুল মুখতার : ১/১৩১ সত্যায়ন......

বিস্তারিত»

টেস্ট করার জন্য শরীর থেকে রক্ত নিলে উজু ভাঙবে কি?

জিজ্ঞাসা: রক্ত পরীক্ষার জন্য ডায়াগনিস্টিক সেন্টারে রক্ত দিলে উযু ভাঙ্গবে কি না? জবাব: পরীক্ষার জন্য সাধারণত যে পরিমাণ রক্ত নেয়া হয়, তাতে سيلان বা প্রবাহ পাওয়া যায়। তাই টেস্টের জন্য ডায়াগনিস্টিক সেন্টারে রক্ত দিলে রক্ত দাতার উযু ভেঙ্গে যাবে। তবে যদি টেস্টের জন্য সুইয়ের মাথায় বা মেশিনে সামান্য পরিমাণ রক্ত নেয়া হয়, যা প্রবাহমান নয়, তাহলে উযু ভাঙ্গবে না। সূত্র:......

বিস্তারিত»

বাসের সীটে বসে ঘুমালে উজু ভাঙ্গবে কি না?

জিজ্ঞাসা: বাসের সীটে বসে পেছনে হেলান দেয়া অবস্থায় হালকা বা মাঝারি ঘুম ঘুমালে উজু ভঙ্গ হবে কি না? উল্লেখ্য, এ অবস্থায় শরীরের পূর্ণ ভারসহ নিতম্ব সীটের সাথে লেগে থাকায় প্রায় একীন যে, হাওয়া বের হয়নি আর হাওয়া বের হলে এ অবস্থায় অনুধাবন করা সম্ভব। জবাব: প্রশ্নে বর্ণিত সুরতে বাসের সীটে হেলান দেয়া অবস্থায় ঘুমালে যেহেতু সীটের সাথে নিতম্ব লেগে থাকে......

বিস্তারিত»

সিজারকৃত মহিলার নেফাস পালনের বিধান

জিজ্ঞাসা: স্বাভাবিকভাবে সন্তান জন্ম গ্রহণ করলে মহিলাদের নেফাসের হুকুম দেয়া হয়। জিজ্ঞাসা হল, যে মহিলার সিজারের মাধ্যমে বাচ্চা হয় তার কি নেফাস পালন করতে হবে? জবাব: যদি সিজারের মাধ্যমে কোন মহিলার সন্তান ভূমিষ্ঠ হয়, তাহলে দেখতে হবে সন্তান প্রসব করার পর মহিলাদের যৌনাঙ্গ দিয়ে সাধারণত যে রক্ত বের হয়ে থাকে তা ঐ মহিলা থেকে কিভাবে বের হচ্ছে? যদি তা সন্তান......

বিস্তারিত»

মুবতাদিয়া মহিলার মাত্র পাঁচ দিন হায়েয এসে বন্ধ হয়ে যাওয়া

জিজ্ঞাসা: জনৈকা মুবতাদিয়া মহিলার পাঁচদিন হায়েয এসে বন্ধ হয়ে যায়। পরে আর দশ দিনের মধ্যে হায়েয আসেনি। এখন আমার জানার বিষয় হল, শেষের পাঁচদিনকে হায়েযের মধ্যে গণ্য করা হবে? না কি পবিত্রতার মধ্যে ধরা হবে। জবাব: মুবতাদিয়া বালিকার জন্য করণীয় হল, শেষের পাঁচদিনকে পবিত্রতার মধ্যে গণ্য করা এবং তখন যে নামাযের ওয়াক্ত চলছিল সে নামাযের মুস্তাহাব ওয়াক্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করে......

বিস্তারিত»

মাহরাম মহিলা কর্তৃক হায়েয অবস্থায় মৃত ব্যক্তিকে স্পর্শ করা

জিজ্ঞাসা: মৃত ব্যক্তিকে তার কোন মাহরাম মহিলা হায়েয অবস্থায় স্পর্শ করতে পারবে কি না? জবাব: মৃত ব্যক্তিকে তার কোন মাহরাম মহিলা হায়েয অবস্থায় স্পর্শ করতে পারবে। সূত্র: তিরমিযী : /৩৫, তুহফাতুল আহওয়াযী : ১/৩০৮, আছারুল হাদীস : ১/২০০, কিতাবুল ফাতাওয়া : ২/১০৫ روي الترمذي في جامعه ১/৩৫ : قالت عائشة قال لي رسول الله صلى الله عليه وسلم إن حيضتك......

বিস্তারিত»