গরু ছাগল ইত্যাদি ভাগে দেওয়া


[লিখেছেন jibaitunnoor, October 12, 2020 05:35 am ]

প্রশ্ন:

আমাদের দেশে প্রচলন আছে যে, কোন ব্যক্তি নিজে ছাগল ক্রয় করে, তা নিজে লালন পালন না করে অন্যকে ভাগে দেয়। আমার জানার বিষয় হল, এভাবে ছাগল ভাগে দেওয়ার শরয়ী হুকুম কী?

উত্তর:

হানাফী মাযহাব অনুযায়ী গরু ছাগল ইত্যাদি ভাগে দেয়া জায়েয নয়। তবে আমাদের দেশে প্রচলিত নিয়মে যদি কেউ ভাগে দেয় এবং তাদের মধ্যে এর ভাগ বন্টন নিয়ে কোন গোলমাল, বা সমস্যা না হয়, তাহলে তা নিয়ে বিবাদের দরকার নেই। কারণ, তা আমাদের মাযহাব অনুাযী জায়েয না হলেও ইমাম আহমদ বিন হাম্বল রহ. এর মতে জায়েয আছে। বর্তমানে উক্ত মুআমালা ব্যাপক আকার ধারণ করার কারণে হযরত থানবী রহ. হাম্বলী মাযহাব অনুাযী ফাতাওয়া দিয়েছেন।

তবে হানাফী মাযহাব অনুাযী কেউ উক্ত মুআমালা করতে চাইলে তার ভিন্ন সুরত রয়েছে।

১. গরু দাতা লালন পালন কারীকে বলবে আমার গরুটা আপনি এক বছর লালন পালন করুন। আপনাকে ৫০০ টাকা দিব। এরপরে ঐ টাকা না দিয়ে তার পরিবর্তে উভয়ের সন্তুষ্টির মাধ্যমে যদি গরুর বাছুর বা ছাগলের বাচ্চা দেয়, তাহলে তা জায়েয হবে। কিন্তু প্রথমেই এই শর্ত করা যে, এক বছরের বাচ্চা আমার আর অন্য বছরের বাচ্চা আপনার, এরূপ জায়েয নয়।

২. পশুর মালিক উক্ত পশুর অর্ধেক, ভাগে গ্রহণকারী ব্যক্তির কাছে বিক্রয় করে মূল্য মাফ করে দিবে। তখন সে ব্যক্তি ঐ পশুর অর্ধেকের মালিক হয়ে যাবে। আর তা থেকে যে দুধ বাচ্চা এবং বিক্রয় মূল্য অর্জন হবে, তা উভয়ে ভাগ করে নিবে।

৩. অথবা উক্ত পশুর একাংশের মধ্যে লালন পালন কারীকে মূল্যের মাধ্যমে শরীক করে নিবে, যদিও তার টাকা কম হয়। তারপরে দুই জনের মধ্যে লভ্যাংশ নিয়ে চুক্তি হবে। এইভাবে হিলার মাধ্যমে পশু ভাগে দেয়া বৈধ হবে।

সূত্র:

ফাতাওয়া হিন্দিয়া: ৪/৪৪৫, আল মুহীতুল বুরহানী: ৮/৩৯৯, খুলাসাতুল ফাতাওয়া: ৩/৯৪, ফাতাওয়া হিন্দিয়া: ২/৩৩৫, আল মুগনী: ৭/৩২২, ইমদাদুল ফাতাওয়া: ৩/৩৪২, ফাতাওয়া মাহমুদিয়া: ২৫/১৯৪