ঈলায়ে মুআব্বাদের শরয়ী হুকুম


[লিখেছেন jibaitunnoor, February 4, 2021 01:29 pm ]

প্রশ্ন:

এক ব্যক্তি কসম করে তার স্ত্রীকে একথা বলেছে যে, আমি তোমার সাথে কোন দিন মিলন করব না। এখন তারা পুনরায় মিলন করতে চাইলে পারবে কি না? পারলে এর সূরত কী?

উত্তর:

প্রশ্নে বর্ণিত সূরতটিকে শরঈ পরিভাষায় ঈলায়ে মুআব্বাদ বলা হয়। আর এ ক্ষেত্রে শরীয়তের হুকুম হল, কথাটি বলার পর থেকে চার মাসের মধ্যে স্ত্রীর সাথে সহবাস করলে উক্ত কসম ভঙ্গ হয়ে যাবে। ফলে, ঐ কসমের কাফফারা আদায় করতে হবে।
আর কসমের কাফফারা হল, দশজন মিসকিনকে দু’ বেলা তৃপ্তি সহকারে খাবার খাওয়ানো বা তাদেরকে সতর ঢেকে যায় এ পরিমাণ কাপড় প্রদান করা। আর যদি তা সম্ভব না হয় তাহলে ধারাবাহিক ভাবে তিনদিন রোযা রাখা।

আর যদি চার মাস অতিবাহিত হয়ে যায়, কিন্তু এর ভিতরে সহবাস করা হয়নি, তাহলে স্ত্রীর উপর এক তালাকে বায়েন পতিত হবে। এ ক্ষেত্রে পূন: স্ত্রীকে ফিরিয়ে নিতে চাইলে জরুরী হল, নতুন করে বিবাহ দুহরিয়ে নেয়া।

সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত ব্যক্তির যদি কসমের পর থেকে এখনও চার মাস অতিবাহিত না হয়ে থাকে এবং পুনরায় স্ত্রীর সাথে মিলন করতে চায় তাহলে তিনি মিলন করে কাফফারা আদায় করে দিবেন। আর যদি চার মাস অতিবাহিত হয়ে গিয়ে থাকে তাহলে স্ত্রীর উপর এক তালাকে বায়েন পতিত হওয়ায় পূনরায় বিবাহ দুহরিয়ে নিয়ে মিলন করবেন এবং কসমের কাফফারা আদায় করে দিবেন।

সূত্র:

সূরা বাকারা: ২২, সহীহ বুখারী: ২/৯৯৫, বাদায়েউস সানায়ে ৩/২৮১, ফাতহুল কাদীর: ৪/১৭৪, আল হেদায়া: ১/৪০১, আল বাহরুর রায়েক: ৪/১০০, আদ্দুররুল মুখতার: ৩/৪২৭,
[في بدائع الصنائع ৩/২৮১] هل يبطل بمضى المدة من غير فيء؟ فإن كان الايلاء مطلقا أو مؤبدا بأن قال والله لا اقربك أبدا أو قال والله لا اقربك ولم يذكر الوقت فمضت اربعة اشهر من غير فيئ حتى بانت بتطليقة لا يبطل الايلاء حتى لو تزوجها فمصت أربعة اشهر آخر منذ تزوج يقع عليها تطليقة اخرى،